মঙ্গলবার, ৩১ জুলাই, ২০১২

পাটের ছাল ছাড়ানোর ধুম পড়েছে কুড়িগ্রামের চিলমারি উপজেলা গ্রামঞ্চলের ডোবা নালায়

পাট নিয়ে ব্যস্ত কৃষক

চিলমারি সংবাদদাতাঃ
সোনালি আশেঁর সোনালী রংয়ে ভরে গেছে কৃষকের ঘর ।এবছর সোনালী আঁশ আর কৃষকের গলার ফাঁস নয় । বাজারে দাম বেশি থাকায় পাটের ছাল ছাড়ানোর ধুম পড়েছে কুড়িগ্রামের চিলমারি উপজেলা গ্রামঞ্চলের ডোবা নালায় । ফলনও হয়েছে মোটামুটি ভাল। সোনালি আশেঁর দীর্ঘ পথ পরিক্রমায় এবছর মৌসুমের শুরুতেই কৃষকরা পাট বিক্রি করে দাম ভাল পাচ্ছে । উপজেলার হাট-বাজারগুলোতে  প্রতিমন পাট ১৭শ” থেকে ২ হাজার টাকা পর্যন্ত বিক্রি হচ্ছে ।  ভালো ফলন ও আশানুরুপ দাম পেয়ে   কৃষকের চোখে মূখে এখন খুশীর ঝিলিক ।
বিগত কয়েক বছর থেকে বাজারে পাটের তেমন দাম না থাকায় এ অঞ্চলের কৃষকরা পাট চাষ ছেড়ে দিয়ে অন্যান্য লাভজনক ফসলের চাষাবাদে ঝুকে  পড়েছে। কারন পাট চাষ করে খরচের টাকা  উঠতো না কৃষকের ঘরে । অনেক  কৃষক রাগে,দুঃখে পাটে অগ্নিসংযোগের ঘটনাও ঘটাত মাঝে মধ্যে । ক্রেতা শুন্য সেই পাটের বাজারে ব্যাপারী, ফড়িয়া, মহাজনদের আনাগোনা দেখে বদলে গেছে কৃষকের মন । তাছাড়া  পাট বোনার পর একটু বড় হতেই পাট শাক হিসেবে এবং পাট কাঠি জালানী হিসেবে প্রতি আঁটি ৮-১০টাকা দরে বাজারে বিক্রি করে এ বছর  কৃষকরা ভাল আয় করেছে। তাই মৌসমের শুরুতেই সরগরম হয়ে উঠেছে পাটের হাট ।

কোন মন্তব্য নেই:

একটি মন্তব্য পোস্ট করুন